পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য


পাবজি গেমের অজানা তথ্য ও গোপন রহস্য || পাবজি গেম

পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য

 

আজকে আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য। বর্তমানে বাংলাদেশ ও বিশ্ব জুড়ে পাবজি গেম টি সবথেকে জনপ্রিয় গেম হয়ে উঠেছে। এমনকি আমি নিজে নিয়মিত পাবজি গেম টি খেলি আশা করি আপনিও নিয়মিত পাবজি গেম টি খেলেন। দুঃখের বিষয় হলো আমরা যারা পাবজি গেমটি খেলি বেশিরভাগ গেমার পাবজি গেমের ইতিহাস জানেনা পাশাপাশি গেমটি সম্পর্কে তাদের তেমন কোন ধারণা নেই। আপনি যদি আজকের এই আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ পড়েন তাহলে পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। তাহলে চলুন বেশি কথা না বলে শুরু করা যাক।

 

আমরা সবাই জানি বর্তমান সময়ে মোবাইল ও কম্পিউটার গেমের মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় গেম হল পাবজি গেমটি। প্রতিদিন বিশ্বব্যপী কমপক্ষে ৩ কোটি মানুষ এই গেমটি খেলে। প্রায় সকল বয়সী মানুষের কাছেই পাবজি গেমটি সমান জনপ্রিয় গেম। জনপ্রিয়তার পাশাপাশি পাবজির বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, গেমটি এর খেলোয়ারদের মধ্যে সহিংসতা ঢুকিয়ে দিচ্ছে। অনেকের মতে এই খেলা হিংস্র মনোভাব, আগ্রাসন এবং সাইবার-গু-ামি প্রচার করে। বিশেষজ্ঞরাও মনে করছেন গেমটির অত্যধিক সহিংসতা গেমারকে আক্রমণাত্মক করে তুলতে পারে। আমরা যারা নিয়মিত পাবজি গেম টি খেলি আমরা শুধু নিজেদের সময় কাটানোর জন্য ও একটু আনন্দ পাওয়ার জন্য গেমটি খেতে।

 

পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এখনি নিচে থাকা ভিডিওটি মনোযোগ দিয়ে সম্পূর্ণ দেখুন। নিচের ভিডিওতে আমি আপনাদেরকে দেখেছি পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য এখনি দেরি না করে নিচে থাকলে ভিডিওটি দেখুন। আশা করি ভিডিওটি আপনার কাছে অনেক অনেক বেশি ভালো লাগবে। ভিডিওটি আপনার কাছে কেন ভাল লেগেছে অথবা কি কারনে খারাপ লেগেছে অবশ্যই আপনার মূল্যবান মতামত আমাদেরকে জানাবেন। পাশাপাশি আপনি চাইলে আপনার গেম খেলার অনুমতি নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে শেয়ার করতে পারেন।

 

 

আশাকরি উপরে কি কেন কিভাবে ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওটি দেখে পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য সম্পর্কে বিস্তারিত একটা ভাল ধারণা পেয়েছেন। এখনো যদি পাবজি গেমের ইতিহাস ও গোপন রহস্য সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে অথবা জানার কোন আগ্রহ থাকে অবশ্যই নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন। পাশাপাশি ওপরের ভিডিওটি যদি আপনার কাছে ভাল লেগে থাকে তাহলে আপনি আপনার সকল ফেসবুক বন্ধুদের মাঝে ভিডিওটি শেয়ার করতে পারেন।]

 

পাবজি গেমের অজানা তথ্য

 

এবার জেনে নেয়া যাক কে এই পাবজি কে তৈরি করেছে ও কিভাবে তৈরি করেছে। পাবজি গেম টি তৈরি করেছেন ব্রেন্ডান গ্রিন যাকে প্লেয়ার আননোন নামে বলা হয়। তিনি একজন ফটোগ্রাফারও ছিলেন। এরপর আয়ারল্যান্ড ছেড়ে ব্রাজিলে চলে যান এবং ওখানে বিয়ে করেন। কিন্তু দুই বছরের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। আর তার ফল স্বরূপ তিনি আবার আয়ারল্যান্ডে ফিরে আসেন এবং অবসর সময় তিনি প্রচুর গেম খেলতেন। তার পছন্দের গেমগুলোই তিনি খেলতেন কিন্তু তার মনের মধ্যে কিছু পরিকল্পনা ছিল। তিনি এক সময় দক্ষিণ কোরিয়া চলে গেলেন এবং সেখানে চং হং কিং নামের একজন বন্ধু পেলেন। দুইজন মিলেই ব্যাটেল রয়েল নামক একটি গেম থেকে অনুপ্রেরণা পেলেন। অবশেষে পাবজি গেমটি বানাতে সক্ষম হলেন।

 

পাবজি খেলতে গিয়ে বাবা-মায়ের ১৬ লাখ টাকা শেষ করে দিলেন এক কিশোর। ১৭ বছর বয়সী ছেলেটির কাছে বাবা-মায়ের তিনটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য ছিলো এই তথ্যগুলো ব্যবহার করে. গেমের বিভিন্ন পেড অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে এবং গেমের ভিতরে টাকা চিনতে গিয়ে ও আপগ্রেড করতে ১৬ লাখ টাকা খরচ করে ফেলেছেন। ওই কিশোর তার মায়ের ফোন থেকে পাবজি খেলতো। ছেলের হাতে দীর্ঘসময় ফোন দেখে মা বকাবকি করলে,

 

অ্যাপ্লিকেশন কেনার পাশাপাশি, গেমটি খেলতে গিয়ে সে টিমমেটদের জন্য আপগ্রেডও কিনেছিল বলে জানা গেছে। যদিও সে কোনোদিন বাবা-মাকে গেম খেলার জন্য অর্থ খরচের কথা জানায়নি। এমনকি ফোনে ব্যাংক থেকে মেসেজ এলে সে সেগুলো ডিলিট করে দিত। তবে ব্যাংকের বই আপডেট করার পর তার বাবা মা ১৬ লাখ টাকার হিসেব বুঝতে পারেন।

 

১৭ বছর বয়সী কিশোরের বাবা একজন সরকারি চাকুরীজীবী। সে ছেলের ভবিষ্যৎ ও চিকিৎসার জন্য ওই টাকা জমিয়ে রেখেছিলো। কিশোর যখন পাবজি খেলতো তখন তার বাবার পোস্টিং অন্য জায়গায় ছিল। জানাজানি হওয়ার পর ওই কিশোরের পরিবার পুলিশের কাছে সাহায্য চাইলেও, পুলিশ তাদের কোনো সাহায্য করতে পারেনি।

 

ওই কিশোরের বাবা একজন ইন্ডিয়ান সরকারি চাকুরীজীবী। সে ছেলের ভবিষ্যৎ ও চিকিৎসার জন্য ওই টাকা জমিয়ে রেখেছিলো। এই ঘটনাটি মূলত ইন্ডিয়াতে ঘটেছে বাংলাদেশের হয়। সন্তানের কাছে এভাবে ব্যাংকের তথ্য দেয়া কখনো উচিত হয়নি।

 

পাবজি গেমের ইতিহাস

 

পাবজি গেম এ বিশ্ব রেকর্ড :- 20 জুন 2018 সালে অনুসারে মাসিক গড় প্রায় 227 মিলিয়ন ও দৈনিক প্রায় 87 মিলিয়ন লোকেরা বর্তমানে গেমটি খেলে। প্রায় বাংলাদেশের 1 কোটি 40 লাখ মানুষের খেলে প্রতিদিন। তার মধ্যে আমি একজন PUBG প্রেমী। আপনি যদি আমাদের সাথে গেমটি খেলতে চান তাহলে আপনার গেমের id কমেন্টে পাঠান।

 

পাবজি গেম বাজারে আসে কবে :- পাবজি গেমটি কবে প্রকাশিত হয়েছে তা হয়তো অনেকেই জানি না। ২৩ মার্চ ২০১৭ সালে গেমটি মাইক্রোসফট উইন্ডোজের জন্য রিলিজ করা হয়। ২০ ডিসেম্বর ২০১৭ সালে গেমটি সম্পূর্ণভাবে রিলিজ করা হয়। এন্ড্রয়েড ও আইওএস ভার্সনে রিলিজ হয় ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। স্মার্টফোনের জন্য গেমটি রিলিজ হয় ফেব্রুয়ারি 9. 2018 একই দিনে অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোন এর জন্য বের করা হয়।

 

ভার্চুয়াল ব্যান্ডেনা কি :- যে কোন গেম বের হওয়ার কয়েক মাস আগে থেকে আপনি চাইলে ফ্রি অর্ডার করতে পারেন গেমটিকে। PUBG গেমটি বের হওয়ার কয়েক মাস আগে যারা অর্ডার করেছিলেন তাদেরকে PUBG পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে একটি ভার্চুয়াল ব্যান্ডেনা। গেমের ভিতরে আপনি ভার্চুয়াল ব্যান্ডেনা আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। অনেক মানুষ আছে যারা এটি 1000 ডলার দিয়ে ভার্চুয়াল ব্যান্ডেনা কিনে গেমের ভিতর শুধু ব্যবহার করে। ভার্চুয়াল ব্যান্ডেনা ছবি নিচে দেওয়া আছে আপনি চাইলে দেখে নিতে পারেন

 

পাবজি BOTS  কিভাবে কিভাবে কাজ করে :-  আপনি যদি PUBG গেমটি খেলে থাকেন তাহলে আপনি জানেন একটি গেমে 100 জন মানুষ থাকলে গেমটি শুরু হয়। 100 জনের মধ্যে সবাই কিন্তু মানুষ থাকে না গেমের ভিতরে কিছু সংখ্যক মানুষ থাকে আর কিছু BOTS থাকে। এর ফলে গেম খেলতে অনেকটা সহজ হয় আমাদের। 100 জনের মধ্যে যদি 100 জন মানুষ থাকে তাহলে আমাদের গেম খেলতে অনেক কঠিন হতো মানুষ অনেক চালাক আর BOTS অনেক হামলা। এর ফলে গেম খেলা অনেক সহজ হয়ে যায়।


Related Post :- All PUBG Tips & News


পাবজি গেমের নাম পাবজি কেন :- এ গেমটি সকল খেলোয়াড় রা নিজের নাম না প্রকাশ করে গেমটি খেলতে পারে। যে কোন মানুষ চাইলে নিজের নামের বদলে যেকোন নাম ব্যাবহার করে গেমটি খেলতে পারে। আর এই সূত্র ধরে গেম এর নামকরণ করা হয় প্লেয়ারআননোওন’স ব্যাটলগ্রাউন্ড অর্থাৎ PUBG সম্পূর্ণ নাম হয়। Player Unkownsn’s Battleground

 

Winner Winner Chicken Dinner অর্থ কি :- PUBG গেমটিতে আমরা যখন একটি লেভেল জিতেযায় তখন আমাদেরকে দেওয়া হয় Winner Winner Chicken Dinner অর্থ কি আমরা অনেকেই জানি না। আগের মানুষ যখন জুয়া খেলে জিতে যেত জিতে যাওয়ার টাকা দিয়ে তখনকার মানুষ chicken dinner ডিনার করত। এ কারণে গেমের ভিতরে কোন লেভেল জিতে গেলে আমাদেরকে দেওয়া হয় Winner Winner Chicken Dinner।

 

পাবজি গেম এর কোন প্রকার মার্কেটিং করা হয়নি কেন :- গেমটি কোন প্রচার ছাড়াই সাধারন মানুষের কাছে অতি জনপ্রিয় হয়ে যায়। একজন আয়োজনকে বলে বলে এই গেমটি প্রচার করে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। এই ভাবেই গেমটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। কোন গেম যদি আসলেই ভালো তাহলে কখনোই গেমটি প্রচার করা লাগে না। মানুষ এমনি গেমটিকে খেলার শুরু করে দেয় আর এইভাবে গেমটি প্রচার শুরু হয়।

 

আজকে আমি আপনাদের মাঝে পাবজি গেমের ইতিহাস শেয়ার করেছি আমি যদি আপনাদের মাঝে কোন প্রকার ভুল তথ্য শেয়ার করে থাকে অবশ্যই নিচে কমেন্টের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন। আজকে আমি আপনাদের মাঝে যে তথ্যগুলো শেয়ার করেছি এই তথ্যগুলো মধ্যে আপনার কাছে কোন তথ্য গুলো সব থেকে বেশি ভালো লেগেছে অবশ্যই নিচে কমেন্ট এর মাধ্যমে আমাদেরকে জানাবেন। আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট করে আমাদের ওয়েবসাইটের আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

 


Copyright © 2018-2021 Bangladeshgamer.com