সেরা ৬টি 15 হাজার টাকার গেমিং মোবাইল রিভিউ


15 হাজার টাকার গেমিং মোবাইল

15 হাজার টাকার গেমিং মোবাইল

 

আজকে আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব 15 হাজার টাকা মধ্যে সবথেকে ভালো 6 টা গেমিং মোবাইল। বর্তমানে বাংলাদেশের বাজারে 15000 টাকা বাজেটে অনেকগুলো ভালো গেমিং মোবাইল পাওয়া যায়। কিন্তু কোন মোবাইলটি সবথেকে বেশি ভালো হবে বেশিরভাগ মানুষ জানে না। এই কারণে আজকে আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করব সেরা ৬টি 15 হাজার টাকার গেমিং মোবাইল।


1. Realme 3 Pro

 

Realme 3 Pro 15 হাজার টাকার নিচে থাকা অন্যতম সেরা একটি ফোন। ফোনটিতে রয়েছে IPS LCD 6.5 ইঞ্চি ফুল এইচডি ওয়াটার ড্রপ ডিসপ্লে, রেজুলেশন 1080 x 2340 পিক্সেল। ডিসপ্লে প্রোটেকশন থাকছে কর্নিং গরিলা গ্লাস 5 ডিসপ্লে প্রটেকশন।

 

মোবাইলটিতে প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে Snapdragon 710 (10 nm) প্রসেসর। গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Adreno 616 গ্রাফিক্স প্রসেসিং। Realme 3 Pro মোবাইলের সব ধরনের গেম খেলতে পারবেন মিডিয়াম টু হাই গ্রাফিক্স সেটিং এ। প্রসেসরটি (10 nm) হওয়ার কারণে অনেক কম গরম হয় অনেক কম ব্যাটারি ব্যবহার করে। দামের কথা চিন্তা করলে অনেক ভালো।

 

Realme 3 Pro মোবাইলে রয়েছে ৪/৬ জিবি র‍্যাম ও ৬৪/১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, মোবাইলটিতে সর্বোচ্চ ডেডিকেটেড মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন ২৫৬ জিবি পর্যন্ত।

 

অ্যান্ড্রয়েড পাই ৯ অপারেটিং সিস্টেমের ফোনটি চলবে কিন্তু মোবাইলটিতে কিছুদিনের মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ১০ আপডেট চলে আসবে। পাশাপাশি ব্যবহার হচ্ছে ColorOS 6 কিছুদিনের মধ্যে রিলমি OS মোবাইলটিতে চলে আসবে।

 

মোবাইলটিতে ব্যাক ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ১৬+৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেটআপ। আর সেলফি তোলার জন্য ক্যামেরা আছে ২৫ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এতে ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে ৪কে রেজুলেশনে। মোবাইলটি ব্যাক ক্যামেরা সর্বোচ্চ 4K রেজুলেশন ভিডিও ধারণ করতে পারবেন। আমি মনে করি এই দামে সবথেকে ভালো সেলফি ক্যামেরা এই মোবাইলটিতে পাবেন।

 

মোবাইলটিতে ব্যাটারি হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের একটি বড় ব্যাটারি। এত বড় ব্যাটারি চার্জ দেয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে 20 ওয়াট ফাস্ট চার্জার। 20 ওয়াট ফাস্ট চার্জার সাহায্যে মোবাইলটি 30 মিনিট চার্জ দিলে 50% চার্জ হয়ে যাবে। এই মোবাইলে আপনাকে ব্যাটারি ব্যাকআপ চার্জিং নিয়ে কোন চিন্তাই করতে হবে না।

 

ফোনটির ৪ জিবি র‍্যাম এবং ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের বাংলাদেশের বর্তমান আনঅফিশিয়াল দাম ১৫৯৯৯ টাকা। আর ৬ জিবি র‍্যাম এবং 128 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের আনঅফিশিয়াল  দাম ১৬৯৯৯ টাকা। দামের কথা চিন্তা করলে মোবাইলটি অনেক ভালো।  মোবাইলটি বাংলাদেশী অফিশিয়াল ভাবে বর্তমানে পাওয়া যায় না। কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন মোবাইলটি আপনার কাছে কিরকম লেগেছে।


2. Redmi Note 8 

 

 

Xiaomi Redmi Note 8. 15 হাজার টাকার থেকে 17 হাজার টাকার মধ্যে সবথেকে ভালো গেমিং মোবাইল। মোবাইলটিতে রয়েছে IPS LCD 6.3 ইঞ্চি ফুল এইচডি ওয়াটার ড্রপ ডিসপ্লে, রেজুলেশন 1080 x 2340 pixels। ডিসপ্লে প্রোটেকশন থাকছে কর্নিং গরিলা গ্লাস 5 প্রটেকশন। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই বাজেটে এই ডিসপ্লে মোটামুটি অনেক ভালো।

 

মোবাইলে প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে Snapdragon 665 (11 nm) প্রসেসর। গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Adreno 610। Xiaomi Redmi Note 8 মোবাইলের সব ধরনের গেম খেলতে পারবেন মিডিয়াম টু হাই গ্রাফিক্স সেটিং এ কোন প্রকার সমস্যা ছাড়া।

 

Xiaomi Redmi Note 8 মোবাইলে রয়েছে 32/3 ও 64/4 ও 128/4 জিবি র‍্যাম ইন্টারনাল স্টোরেজ, মোবাইলটিতে ডেডিকেটেড মাইক্রো এসডি কার্ড microSDXC

 

অ্যান্ড্রয়েড পাই 9.0 অপারেটিং সিস্টেমের মোবাইলটি বর্তমানে চলে। কিছুদিনের মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড 10 আপডেট চলে আসবে। পাশাপাশি ব্যবহার হচ্ছে MIUI 11 কিছুদিনের মধ্যে চলে আসবে MIUI 12। মোটামুটি এক থেকে দুই বছর সব ধরনের ছোট-বড় সফটওয়্যার আপডেট পাবেন।

 

মেইন ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে 48+8+2+2 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেলফি ক্যামেরা ২৫ মেগাপিক্সেল। এতে ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে 4K রেজুলেশনে। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই দামে অনেক ভালো ক্যামেরা সেটআপ ব্যবহার করা হয়েছে। আপনি যদি গেমিং মোবাইল এর পাশাপাশি ভালো ক্যামেরা মোবাইল খুঁজে থাকেন তাহলে এই মোবাইলটি আপনার জন্য।

 

Xiaomi Redmi Note 8 মোবাইলে ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে Non-removable Li-Po 4000 mAh ব্যাটারি। এত বড় ব্যাটারি চার্জ দেয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে Fast battery charging 18W। 18 ওয়াট ফাস্ট চার্জার সাহায্যে মোবাইলটি 40 মিনিট চার্জ দিলে 50% চার্জ হয়ে যাবে। এই মোবাইলে ব্যাটারি ব্যাকআপ চার্জিং নিয়ে কোন চিন্তাই করতে হবে না।

 

Xiaomi Redmi Note 8 ফোনটির 3 জিবি র‍্যাম 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের বাংলাদেশের আনঅফিশিয়াল দাম 14000 টাকা। আর 4 জিবি র‍্যাম 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের আনঅফিশিয়াল দাম 17 হাজার টাকা।

 

Xiaomi Redmi Note 8 ফোনটির 3 জিবি র‍্যাম 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের বাংলাদেশের বর্তমান অফিশিয়াল দাম 17,499 টাকা। আর 4 জিবি র‍্যাম 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের অফিশিয়াল দাম দাম 18,999 4 টাকা।

 

Samsung M30 ফোনটির 3 জিবি র‍্যাম 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের বাংলাদেশের আনঅফিশিয়াল দাম 15,999 টাকা। আর 4 জিবি র‍্যাম 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের আনঅফিশিয়াল দাম 17,999 নীরবে দেখাও হাজার টাকা।

 

Samsung M30 ফোনটির 3 জিবি র‍্যাম 32 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের বাংলাদেশের বর্তমান অফিশিয়াল দাম 18,990 টাকা। আর 4 জিবি র‍্যাম 64 জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের অফিশিয়াল দাম দাম 20,990 টাকা।

 

টেকনিক্যাল বিবরণ

  • 6.5 inches, 102.8 cm2 (~82.7% screen-to-body ratio)
  • Dual Sim, 3G, 4G, VoLTE, Wi-Fi
  • Back Camera Quad 48+8+2+2 Megapixel
  • Front Camera 13 Megapixel
  • Memory 32GB 64GB 128GB Internal
  • RAM 3GB RAM 4GB RAM 6GB RAM
  • Chipset Qualcomm SDM665 Snapdragon 665 (11 nm)
  • GPU Adreno 610
  • OS Android 9.0 (Pie); MIUI 11
  • Non-removable Li-Po 4000 mAh battery
  • Charging Fast battery charging 18W

3. Samsung M30 

Samsung M30. 15 হাজার টাকার মধ্যে সবথেকে ভালো স্যামসাং গেমিং মোবাইল। মোবাইলটিতে রয়েছে Super AMOLED 6.4 inches স্যামসাং ডিসপ্লে। ওয়াটার ড্রপ ডিসপ্লে, রেজুলেশন 1080 x 2340 pixels,। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই বাজেটে সবথেকে ভালো ডিসপ্লে। এই বাজেটে এই ডিসপ্লে কখনোই আশা করা যেত না কয়েক বছর আগে।

 

প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে Exynos 7904 (14 nm) প্রসেসর। গ্রাফিক্স প্রসেসিং ইউনিট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে Mali-G71 MP2। প্রসেসর দিক দিয়ে বাকি মোবাইল থেকে অনেকটাই পিছিয়ে থাকবে Samsung M30 । বরাবরের মতন বাকি মোবাইলগুলোর থেকে কম গ্রাফিক্স সেটিং এ গেমগুলো খেলতে হবে।

 

Samsung M30 মোবাইলে রয়েছে 32/3 ও 64/4 জিবি র‍্যাম ইন্টারনাল স্টোরেজ, মোবাইলটিতে ডেডিকেটেড মাইক্রো এসডি কার্ড microSDXC (dedicated slot)। মেমোরি টাইপ eMMC 5.1

 

অ্যান্ড্রয়েড 8.0 অপারেটিং সিস্টেমের মোবাইলটি বর্তমানে চলে। কিছুদিনের মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড 10 আপডেট চলে আসবে। পাশাপাশি ব্যবহার হচ্ছে One UI 2 OS। আশা করা যায় মোটামুটি এক থেকে দুই বছর পর্যন্ত সব ধরনের ছোট বড় সফটওয়্যার আপডেট পাবেন।

 

ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে 13+5+5 মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। সেলফি ক্যামেরা 16 মেগাপিক্সেল। এতে ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে [email protected] রেজুলেশনে। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই দামে মোটামুটি অনেক ভালো ক্যামেরা সেটআপ ব্যবহার করা হয়েছে।

 

Samsung M30 মোবাইলে ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে Non-removable Li-Po 5000 mAh battery ব্যাটারি। এত বড় ব্যাটারি চার্জ দেয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে Fast battery charging 15W। 15W ওয়াট ফাস্ট চার্জার সাহায্যে মোবাইলটি 45 মিনিট চার্জ দিলে 50% চার্জ হয়ে যাবে। এই মোবাইলে ব্যাটারি ব্যাকআপ চার্জিং নিয়ে কোন চিন্তাই করতে হবে না।

 

 

টেকনিক্যাল বিবরণ

  • 6.35 inches, Super AMOLED 720 x 1544 pixels
  • Dual Sim, 3G, 4G, VoLTE, Wi-Fi
  • Back Camera Triple 13 MP + 8MP + 2MP Megapixel
  • Front Camera 8 MP Megapixel
  • Memory 32GB 64GB Internal
  • RAM 3GB RAM 4GB RAM RAM
  • Chipset Qualcomm SDM665 Snapdragon 665 (11 nm)
  • Mali-G71 MP2
  • Android 8.1 (Oreo), upgradable to Android 10.0
  • Non-removable Li-Po 5000 mAh battery
  • Charging Fast battery charging 15W


4. Vivo U10 

 

Vivo U10 এই মোবাইলটির সবথেকে বড় আকর্ষণ হল 5000 mAh বড় ব্যাটারি ও Fast battery charging 18W এই দামের অন্য কোন মোবাইলে পাবেন না। ফাস্ট চার্জার থাকার কারণে মোবাইলটি অনেক তাড়াতাড়ি চার্জ করতে পারবেন। ব্যাটারি বড় হওয়ার কারণে অনেক বেশি সময় ধরে গেমিং করতে পারবেন। Vivo U10 মোবাইলটিতে আপনি সব ধরনের গেম খেলতে পারবেন। (11 nm) প্রসেশ্বর হওয়ার কারণে অনেক কম ব্যাটারি ব্যবহার করবেন ও অনেক কম মোবাইলটি গরম হয়। Vivo U10 মোবাইলটি বাংলাদেশের বাজারে আনঅফিসিয়াল দাম 3/32 GB 11,000 টাকা ও 4/64 GB 13,000 টাকা।

 

টেকনিক্যাল বিবরণ

  • 6.35 inches, IPS LCD capacitive 720 x 1544 pixels
  • Dual Sim, 3G, 4G, VoLTE, Wi-Fi
  • Back Camera Triple 13MP+8MP+2MP MegapixelBack
  • Front Camera 8 MP Megapixel
  • Memory 32GB 64GB Internal
  • RAM 3GB RAM 4GB RAM
  • Qualcomm SDM665 Snapdragon 665 (11 nm)
  • Adreno 610
  • Android 8.1 (Oreo), upgradable to Android 10.0
  • Non-removable Li-Po 5000 mAh battery
  • Charging Fast battery charging 18W

5. Realme 5 

 

Realme 5 এই মোবাইলটির সবথেকে বড় আকর্ষণ হল 5000 mAh বড় ব্যাটারি। ব্যাটারি বড় হওয়ার কারণে অনেক বেশি সময় ধরে গেমিং করতে পারবেন। একবার ব্যাটারি ফুল চার্জ করলে প্রায় 2 দিন ব্যবহার করতে পারবেন। Realme 5 মোবাইলটিতে আপনি সব ধরনের গেম মিডিয়াম টু হাই সেটিং-এ খেলতে পারবেন। (11 nm) প্রসেশ্বর হওয়ার কারণে অনেক কম ব্যাটারি ব্যবহার করবেন ও অনেক কম মোবাইলটি গরম হবে অনেক সময় ধরে গেম খেললে। বাজেটের কথা চিন্তা করলে এই মোবাইলটি আমি মনে করি অনেক ভাল এই বাজেটে। Realme 5 মোবাইলটি বাংলাদেশের বাজারে আনঅফিসিয়াল দাম 3/32 GB 12,500 টাকা ও 4/64 GB 14,500 টাকা।

 

টেকনিক্যাল বিবরণ

  • 6.5 inches, IPS LCD capacitive 720 x 1600 pixels,
  • Dual Sim, 3G, 4G, VoLTE, Wi-Fi
  • Back Camera Quad 12MP+8MP+2MP+2MP Megapixel
  • Front Camera 13 MP Megapixel
  • Memory 32GB 64GB 128GB Internal
  • RAM 3GB RAM 4GB RAM
  • Qualcomm SDM665 Snapdragon 665 (11 nm)
  • Adreno 610
  • Android 8.1 (Oreo), upgradable to Android 10.0
  • Non-removable Li-Po 5000 mAh battery
  • Charging Battery charging 10W

 


6. Moto One Macro

 

Moto One Macro একটি অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান প্রোগ্রামের মোবাইল হওয়ার কারণে এই মোবাইলের দুই বছর ধরে সব ধরনের ছোট বড় সফটওয়্যার আপডেট পাবেন। এই মোবাইলটিতে সব ধরনের গেম মিডিয়াম টু হাই গ্রাফিক্স সেটিং-এ খেলতে পারবেন কোন প্রকার সমস্যা ছাড়া। দীর্ঘ সময় ধরে গেম খেলে মোটামুটি গরম হয় তেমন কিছু না আমি মনে করি। Moto One Macro মোবাইলটি বাংলাদেশের বাজারে আনঅফিসিয়াল দাম 14,500 টাকা।

 

টেকনিক্যাল বিবরণ

  • 6.2 inches, IPS LCD capacitive 720 x 1520 pixels,
  • Dual Sim, 3G, 4G, VoLTE, Wi-Fi
  • Back Camera Triple 12MP+2MP+2MP Megapixel
  • Front Camera 8 MP Megapixel
  • Memory 64GB Internal
  • RAM  4GB RAM
  • Mediatek MT6771 Helio P70 (12nm)
  • Mali-G72 MP3
  • Android 8.1 (Oreo), upgradable to Android 10.0
  • Non-removable Li-Po 4000 mAh battery
  • Charging Battery charging 10W

Summary
Review Date
Reviewed Item
গেমিং মোবাইল
Author Rating
51star1star1star1star1star


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© 2020 bangladeshgamer.com